ব্রেকিং

x


পঙ্গু হয়েও থেমে নেই বেলাল

শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ৩:৫২ অপরাহ্ণ

পঙ্গু হয়েও থেমে নেই বেলাল

চট্টগ্রাম: দুই পা নেই তো কি হয়েছে! মনে সাহস আছে আকাশচুম্বী। আছে যে কোনও পরিস্থিতিতে নিজেকে মানিয়ে নেওয়ার দুঃসাহস।

সকল প্রতিবন্ধকতা মাড়িয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্নে বিভোর বেলাল উদ্দিন। বন্ধুদের সঙ্গে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বেড়াতে যাওয়ার পথে ১৩ বছর বয়সে ট্রেনে কাটা পড়ে চিরতরে দুটি পা হারান তিনি।

‘ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়’ এ প্রবাদকে সত্য কথনে পরিণত করেছেন বেলাল। তিনি দেখিয়ে দিয়েছেন ইচ্ছা শক্তি থাকলে যে কোনও কিছুই জয় করা যায়। এগিয়ে যাওয়া যায় অদম্য গতিতে।

শরীরের নিচের অর্ধেক অংশই নেই। ইচ্ছেশক্তির জোরে কেবল দুটি হাতে ভর করেই চালিয়ে যাচ্ছেন জীবন সংগ্রাম। চলার মতো অবলম্বনই নেই। তারপরও থেমে যাননি। কারও করুণার পাত্র না হয়ে, অনুদান গ্রহণ না করে স্বাবলম্বী হয়ে নিজের আর পরিবারের জীবিকা খুঁজে নিয়েছেন চট্টগ্রামের বেলাল। অদম্য এই যুবক হয়েছেন আত্মনির্ভরশীল।

২০০০ সালে বাবাকে হারানোর পর পঙ্গুত্ব নিয়েই বেলালকে ধরতে হয় সংসারের হাল। প্রথমে পানের দোকান, এরপর বিক্রি করেছেন সবজি। সবশেষ গেলবছর নগরের বায়েজিদের রৌফাবাদে একটি অস্থায়ী দোকান দেন বেলাল। আর এতেই চলে মা, স্ত্রী ও দুই সন্তানসহ ৫ সদস্যের পরিবার।

বেলালের বিশ্বাস, ইচ্ছেশক্তি থাকলে প্রতিবন্ধীরাও পারে অনেক কিছু করতে, কারো করুণার পাত্র না হয়ে। যার জন্য দরকার আত্মবিশ্বাস।

তিনি বলেন, ছোটবেলায় অ্যাক্সিডেন্ট হওয়ার পর জীবিকার তাগিদে উপার্জনের নানা চেষ্টা করেছি। তাও ভিক্ষা করিনি। যারা ভিক্ষা করে তারা এই কাজ না করে যেকোনও কাজ করলে আমাদের দেশের অবস্থা আরও উন্নত হতো।

বেলালের বন্ধু নিজাম উদ্দিন বলেন, জীবনে অনেককেই দেখেছি সবকিছু থাকার পরেও ভিক্ষাবৃত্তি করতে। আবার এমনও দেখেছি আরেকজনের ওপর বসে খেতে। কিন্তু পা হারানোর পর থেকেই বেলালকে দেখছি অদম্যগতিতে এগিয়ে যেতে। কোন বাধাই তাকে হার মানাতে পারেনি। পারেনি বেঁধে রাখতে তার পঙ্গুত্ব।

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৩:৫২ অপরাহ্ণ | শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১

ekhonbd24.com |

Development by: webnewsdesign.com