ব্রেকিং

x


ছাত্রলীগের সভাপতিও হতে চান যুবলীগের সম্পাদক!

শুক্রবার, ১৩ মে ২০২২ | ৭:৪৪ অপরাহ্ণ

ছাত্রলীগের সভাপতিও হতে চান যুবলীগের সম্পাদক!

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি ইমরান হোসেন ইমু। তিনি এবার চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হতে চান। এই পদের জন্য সম্প্রতি কেন্দ্রীয় যুবলীগের কার্যালয়ে সাধারণ সম্পাদক পদ-প্রত্যাশী হিসেবে ফরমও জমা দিয়েছেন। তাছাড়া আরো অনেক বির্তকিত নেতাও রয়েছেন বলে কেন্দ্রীয় নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে। অন্যদিকে নগর ছাত্রলীগের সাবেক ও যুবলীগের অনেক নির্যাতিত, ত্যাগী, আন্দোলন সংগ্রামে মাঠে ছিলেন এমন নেতা থাকলেও ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতির ফরম জমা দেয়াকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে দলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক গুঞ্জন-আলোচনা থেমে নেই।

প্রবীন নেতাদের মধ্যে অনেকেই বলছেন, সংগঠনের মধ্যে ত্যাগী নেতা-কর্মীদের কি সংকট পড়েছেন। তাছাড়া সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য কারা ফরম সংগ্রহ বা জমা দিতে পারবেন এমন নিয়ম সু-ষ্পৃষ্ট করা হয়নি। নতুন বা তরুনদের নেতা হওয়ার বয়স-সময় অনেক আছেন। এতো তাড়াতাড়ি পদ-পদবির লোভ লেগে গেলে সংগঠন কিভাবে চলবে এমনটাই মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে নগর ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির একাধিক নেতা বলেন, চট্টগ্রাম নগরীতে ত্যাগী, যোগ্য, সাবেক ছাত্রনেতা থেকে শুরু করে অনেকেই রয়েছেন। এরই মধ্যে পদ-প্রত্যাশী অনেকেই ফরমও জমা দিয়েছেন। পদের জন্য নানা তদবিরও করছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের কাছে। এরপরও ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির সভাপতির পদে থেকেও হতে যাওয়া যুবলীগের নতুন কমিটির সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশী হিসেবে ফরম জমা দেয়ায় নেতা-কর্মীদের মধ্যে দৃষ্টিগোচর হয়েছেন। এটা নিয়ে ব্যাপক গুঞ্জনও চলছে রীতিমতো। তাছাড়া সকলেই পদ-প্রত্যাশী হতে চান, কিন্তু কিছু বিষয় আলোচনা ও প্রশ্নবিদ্ধ হতে উঠে বলে জানান তারা।

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের উপ-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক নাছির উদ্দিন কুতুবী বলেন, বর্তমান নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরাদ হোসেন ইমু নগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আসার জন্য ফরম সংগ্রহ করেছেন। ইতিমধ্যে নগর ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেয়ার জন্যও জোর চেষ্টা চালিয়ে আসছেন। তবে ছাত্রলীগের সভাপতি পদে থেকে সরাসরি যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য ফরম নেয়ার বিষয়ে তৃনমূলে ব্যাপক গুঞ্জন শুরু হয়েছে বলে জানান তিনি। তবে এ বিষয়ে চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান হোসেন ইমুকে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, যুবলীগের চট্টগ্রাম দক্ষিণ, উত্তর ও মহানগরের শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন আগামী ২৮, ২৯ ও ৩০ মে অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল শুক্রবার এই সম্মেলনের বিষয়ে যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল সাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে নিশ্চিত করেছেন। এর আগে গত ৫ এপ্রিল চট্টগ্রাম নগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদ-প্রত্যাশীদের কাজ থেকে জীবন-বৃত্তান্তও নেয়া হয়েছে। এখানে পৃথকভাবেই ১৯১টি বায়োডাটা কেন্দ্রীয় কমিটিতে জমা দেন পদ-প্রত্যাশীরা। গত ২ এপ্রিল থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত চট্টগ্রাম উত্তর জেলা, দক্ষিণ জেলা ও মহানগর যুবলীগের পদ প্রত্যাশী নেতারা কেন্দ্রীয় দপ্তরে জীবন বৃত্তান্ত জমা দেন। পৃথক এই তিন কমিটিতে মোট ১৯১ টি সিভির মধ্যে চট্টগ্রাম উত্তর জেলায় সভাপতি পদে ৯ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ২২ জন, চট্টগ্রাম মহানগরীতে সভাপতি পদে ৩৫টি আর সাধারণ সম্পাদক পদে ৭৩ জন এবং চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলায় সভাপতি পদে ১৩ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ৩৯ জনের সিভি জমা দিয়েছেন।

কেন্দ্রীয় যুবলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক দেলোয়ার শাহাজাদা বলেন, সাংগঠনিক কার্যক্রম আরো গতিশীল ও শক্তিশালী করতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীদের জীবন বৃত্তান্ত জমা দিয়েছেন নেতারা। যুবলীগের চট্টগ্রাম জেলার তিন সাংগঠনিক কমিটির মধ্যে উত্তর জেলার শীর্ষ দুই পদের জন্য ১৯১ জনের জীবনবৃত্তান্ত বা সিভি জমা দেন। কেন্দ্রীয় কমিটি যাছাই-বাছাইও করবেন। সর্বশেষ সম্মেলন দিন-তারিখও দেয়া হয়েছে। এতে কেন্দ্রীয় নেতাদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক সকল কাজ হবে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত ঃ ২০১৩ সালের ৩০ অক্টোবর ইমরান আহমেদ ইমুকে সভাপতি ও নুরুল আজিম রনিকে সাধারণ সম্পাদক করে নগর ছাত্রলীগের ২৪ জনের আংশিক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। সিলেকশনের মাধ্যমে গঠিত ওই কমিটির মেয়াদ ছিল এক বছর। এরমধ্যে সাধারণ সম্পাদকের পদ খালি হওয়ায় এরপর স্থান করে নেন জাকারিয়া দস্তগীর। এরপর থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি চলছে নগর ছাত্রলীগ।

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৭:৪৪ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ১৩ মে ২০২২

ekhonbd24.com |

Development by: webnewsdesign.com